হোটেলে কাজ করেও গোল্ডেন এ প্লাস পেয়েছে কাওছার

0 ৫৩

রাজশাহী প্রতিনিধি

দীর্ঘদিন ধরে বয়োবৃদ্ধ বাবা অসুস্থ, মা করেন ভাতের হোটেল ব্যবসা। মায়ের সঙ্গে ভাতের হোটেলে কাজ করে অতিকষ্টে চলে সংসার ও বোনের লেখাপড়া।

রাজশাহীর তানোর পৌরশহরের চাপড়াবাজার মোড়ের এমনই এক অসহায় পরিবারের সন্তান কাওছার আলী। ভাতের হোটেলে কাজের ফাঁকে ফাঁকে চিকিৎসক হওয়ার স্বপ্ন আঁকে সে। কাওছার এবার বিজ্ঞান বিভাগ থেকে এসএসসিতে গোল্ডেন এ প্লাস পেয়েছে।

কাওছার জানায়, ছোটবেলা থেকে দেখছে তার বাবা নহির উদ্দিন মণ্ডল নানা রোগে অসুস্থ। তখন থেকে মা কাজলরেখা নিজ গ্রাম ধানতৈড় ছেড়ে কাজের সন্ধানে পাশের এলাকা চাপড়াবাজার মোড়ে মেইন রাস্তার ধারে ভাড়া নেন একটি দোকানঘর। আর সেই ঘরেই বসবাসের পাশাপাশি প্রথমে ছোলা মুড়ির ব্যবসা ও বর্তমানে ভাতের হোটেলের ব্যবসা করে সংসার চালিয়ে আসছেন।

এবার ডাক্তার হওয়ার স্বপ্ন দেখছে সে। যদিও সেই স্বপ্নপূরণে পথে পথে রয়েছে সংশয়। তার পরও এগিয়ে যেতে চায় মেধাবী কাওছার আলী। কাওছার আলী বলে, যত বাধাই আসুক, আমি এগিয়ে যাব। সেই লক্ষ্যেই আমাকে এগিয়ে যেতে হবে।

কাওছার আলীর মা কাজল রেখা বলেন, ভাতের হোটেলে দিনরাত কাজ করে এক ছেলে ও এক মেয়েকে নিয়ে কোনো রকম বেঁচে আছি। ছেলের ইচ্ছা লেখাপড়া করা কিন্তু আমার সেই আর্থিক সমর্থন নেই।

চাপড়া উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক জিল্লুর রহমান বলেন, ছেলেটি পিএসসি ও জেএসসিতে ‘এ’ প্লাস ও বৃত্তি পেয়েছে। সুযোগ পেলে তার স্বপ্নপূরণ সম্ভব।

অরিন/মুক্তজমিন