সান্তাহারে মন্দিরে চুরি যাওয়া ১৯ মূর্তি উদ্ধার গ্রেফতার-১

SAMSUNG CAMERA PICTURES
৪৭

আদমদীঘি (বগুড়া) প্রতিনিধি

আদমদীঘির সান্তাহার রথবাড়ী সার্বজনিন রাধা মাধব মন্দিরে চুরি যাওয়া ১৮টি পিতলের মূর্তি ও ১টি কর্তালসহ বিপ্লব এলাহি মিন্টু (২৯) নামের একজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। গত শনিবার দিবাগত রাত ১টায় গোপন সংবাদের ভিক্তিতে পুলিশ ইয়ার্ড কলোনী এলাকায় তার স্বশুড়বাড়ী থেকে চোরাই মুর্তি উদ্ধারসহ তাকে গ্রেফতার করে। বিপ্লব হোসেন উপড় পোওতা গ্রামের ছিদ্দিক হোসেন ছেলে। সে সান্তাহার ইয়ার্ড কলোনী স্বশুড় এমদাদুল হকের বাসায় বসবাস করছিল। উল্লেখ্য : গত ১২ এপ্রিল রাতে সান্তাহারস্থ রথবাড়ী সার্বজনিন রাধা-মাধব মন্দিরের পূজা শেষে পূজারীরা দরজা বন্ধ করে বাসায় চলে যান। গভীর রাতে মন্দিরের গেটের তালা ভেঙ্গে চোরেরা মন্দিরে প্রবেশ করে শ্রীশ্রী রাধা জগনাথ বলদেব ও শুভদ্রা দেবীর পড়নের ১ ভরি ওজনের স্বর্ণের গহনা, ১৫ ভরি ওজনের মাথার মুকুট, চাঁদির তৈরী পিতলের বড় ছোট ৩২টি কৃষ্ণ, রাধা ও গোপাল মূর্তি, কাঁসার বাসনসহ ১লাখ ৩৪ হাজার টাকার মালামাল চুরি করে নিয়ে যায়। এ ঘটনায় মন্দিরের সদস্য প্রদীপ ভৌমিক বাদি হয়ে আদমদীঘি থানায় মামলা দায়ের করে। সম্প্রতি পুলিশ ৭জনকে গ্রেফতার দেখিয়ে সান্তাহার ইয়ার্ড কলোনীর ইউসুফ ব্যাপারী, সুইট, কলসা রথবাড়ীর মেহেদী হাসান বনি, কলসা কোঁচকুড়ির নুপুর ও তার ভাই বেলাল হোসেন এই ৫আসামীকে আদালত কর্তৃক রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করেন। অবশেষে গত শনিবার রাতে গোপন সংবাদের ভিক্তিতে আদমদীঘি থানার অফিসার ইনচার্জ মনিরুল ইসলামের নেতৃত্বে পুলিশ বিপ্লব এলাহি মিন্টুকে তার স্বশুড়ের বাসা থেকে গ্রেফতার ও মন্দিরের চোরাই ১৮টি পিতলের মূর্তি ও ১টি কাসার কর্তাল (জুড়ি) উদ্ধার করেন।