লিচু খেতে গিয়ে হামলার শিকার ছাত্রলীগ নেতা-কর্মী

0 ১১৬

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি

লিচু খাওয়াকে কেন্দ্র করে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে (রাবি) ছাত্রলীগ নেতা-কর্মীদের পিটিয়ে আহত করেছে স্থানীয়রা। গত রাতে বিশ্ববিদ্যালয়ের বেগম রোকেয়া হলের পেছনের লিচু বাগানে এ ঘটনা ঘটে। এতে কমপক্ষে ৭ ছাত্রলীগ নেতা-কর্মী আহত হয়েছেন। এদের মধ্যে দু’জনের অবস্থা গুরুতর হওয়ায় তাদের রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে।

গুরুতর আহতদের মধ্যে রাবি ছাত্রলীগের তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক মাহমুদুল হাসান কাননের দুই হাত ভেঙে গেছে এবং উপ-আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক মেহেদী হাসান আশিকের পায়ে ও মাথায় জখম হয়েছে। বাকিদের রাবি চিকিৎসাকেন্দ্রে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। তবে তাদের পরিচয় পাওয়া যায়নি।

মারধরকারীদের নাম-পরিচয় কেউ জানাতে পারেননি। তবে হামলাকারীরা বিশ্ববিদ্যালয়ের কাছ থেকে গাছগুলো লিজ নিয়ে পাহারা দিচ্ছিল বলে ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা দাবি করেছে।

পুলিশ ও ছাত্রলীগ সূত্রে জানা যায়, ছাত্রলীগ নেতা কানন ও মেহেদীর নেতৃত্বে মঙ্গলবার ছয়-সাত জন ছাত্রলীগ কর্মী লিচু বাগানে যায়। বাগানে থাকা প্রহরীরা লিচু খেতে নিষেধ করলে তারা নিজেদের ছাত্রলীগের নেতা-কর্মী পরিচয় দেয়। এতে দু’পক্ষের মধ্যে বাকবিতণ্ডা সৃষ্টি হয়। একপর্যায়ে প্রহরীরা ছাত্রলীগ নেতাকর্মীদের ওপর চড়াও হয় এবং লাঠি দিয়ে আঘাত করে বাগান থেকে পালিয়ে যায়। এ ঘটনায় ক্ষুব্ধ হয়ে ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা লিচু বাগানে প্রহরীদের টঙে আগুন লাগিয়ে দেয়। পরে হল থেকে রড, রামদা, স্টাম্প নিয়ে ক্যাম্পাসে শোডাউন করে। এতে ক্যাম্পাসে থাকা শিক্ষার্থীদের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে।

এ বিষয়ে ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ফয়সাল আহমেদ রুনু বলেন, ‘আমাদের নেতা-কর্মীকে মারধর করা হয়েছে। আমরা তাদেরকে চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে ভর্তি করেছি। তাদের চিকিৎসা চলছে।’

অরিন▐ মুক্তজমিন