মেঝেতে বসলেন কানাডার প্রধানমন্ত্রী, নাগরিকরা চেয়ারে

0 ৪৪

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:

নাগরিক অধিকার দিন দিন খর্ব হতে হতে এমন জায়গায় এসে পৌঁছেছে, নাগরিক যেন ফেলনা। কিন্তু কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো মনে করেন, প্রধানমন্ত্রীর চেয়েও সাধারণ নাগরিকরা দেশের সম্মানিত ব্যক্তি। তাই তো তিনি একজন নাগরিকের পায়ের কাছে বসে তার খোঁজখবর নিতে পারেন।

একজন নাগরিক যে দেশের সবচেয়ে সম্মানিত ব্যক্তি তার প্রমাণ হয়তো দিলেন কানাডার প্রধানমন্ত্রী। তাই তাকে সাবলীলভাবে দেশের নাগরিককে চেয়ারে বসিয়ে কথা বলতে দেখা গেল। ঘটনাটি ঘটেছে কানাডার টরোন্টো শহরের স্কারবোরো নামক স্থানে।

জাস্টিন ট্রুডো আজ স্কারবোরোতে যান। তারা আসার খবর যেন কেউ তেমন টেরই পাননি। স্থানীয় গণমাধ্যমগুলো বলছে, মেয়র জন টরিকে নিয়ে তিনি কমিউনিটি হাউজিংয়ের উন্নয়নে বড় ধরনের বিনিয়োগের ঘোষণা দেন সেখানে।

সেখানকার বাংলাদেশি কমিউনিটির নেতা ও লিবারেল পার্টির আবুল আজাদ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে কয়েকটি ছবি পোস্ট করেছেন। ছবিগুলোতে দেখা যায়, প্রধানমন্ত্রী হাঁটু গেড়ে মাটিতে বসে নাগরিকদের সঙ্গে কথা বলছেন। নাগরিকরা বসে আছেন চেয়ারে।

ঘটনাস্থলে পেছনের দিকের একটি চেয়ারে বসেছিলেন স্কারবোরো সাউথ ওয়েস্টের এমপি ও মন্ত্রী বিল ব্লেয়ার। প্রধানমন্ত্রী ফ্লোরে হাঁটু গেড়ে বসে কথা বলছেন, আর স্থানীয় এমপি পেছনে বসে আছেন।

তাছাড়া পাশের একটি বেঞ্চে পায়ের ওপর পা রেখে বসেছিলেন মেয়র। ভাবতে না পারলেও দেশটিতে প্রধানমন্ত্রী ও এমপির সঙ্গে নাগরিক কিংবা সাধারণ মানুষের মধ্যে ফারকটা যে নেই বললেই চলে, তারই প্রমাণ ছবিটি।

অরিন▐ মুক্তজমিন