পলাশবাড়ীতে নদী ভাঙনের আশঙ্কায় ৩৪ টি পরিবার

67

পলাশবাড়ী (গাইবান্ধা) প্রতিনিধি

পলাশবাড়ীতে করতোয়া নদীর ভাঙনে ৩৪টি পরিবার হুমকির মুখে। আগামী বর্ষা মৌসুমে নদীগর্ভে বিলিন হতে পারে তাদের বসতবাড়ী গুলো। সরেজমিনে গিয়ে জানা যায়, গাইবান্ধার পলাশবাড়ী উপজেলার ১নং কিশোরগাড়ী ইউনিয়নের সুলতানপুর গ্রামে গত ২ থেকে ৩ বৎসরের ব্যবধানে করতোয়া নদীর ভাঙনে কয়েকটি পরিবারের বসতবাড়ী নদীগর্ভে বিলিন হয়ে গেছে। বর্তমানে ৩০ থেকে  ৩৪টি পরিবার নদী ভাঙনের  ঝুকি নিয়ে দিন কাটাচ্ছে বলে জানান তারা। আগামী বর্ষা মৌসুমে  নদীর ভাঙনে হারাতে পারে তাদের থাকার জায়গা টুকু। এমতবস্থায় এ পরিবার গুলো যাবে কোথায়?  নিরাপদ স্থানে বাড়ীঘর তৈরী করার মত আর্থিক সামর্থ অধিকাংশ পরিবারেরই নাই। ফলে ভূক্তভোগী পরিবার গুলোর মাঝে ব্যাপক হতাশা বিরাজ করছে। খায়রুল, তহিদুল,  শাহারুল সহ এলাকাবাসী জানায়, বিভিন্ন সময়ে জনপ্রতিনিধিরা নদী ভাঙন রোধে ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন, এমন প্রতিশ্রতি দিলেও অদ্যাবধি কোন ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয় নাই। তাই ওই সকল পরিবার গুলো রক্ষার্থে সংশ্লিস্ট বিভাগের উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের আশু দৃষ্টি জরুরী হয়ে পড়েছে। এ ব্যাপারে গাইবান্ধা পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মোখলেছার রহমানের সঙ্গে কথা বললে তিনি জানান, এখন পর্যন্ত ওই ভাঙন ব্যাপারে আমার কাছে কোন তথ্য আসে নাই। আমি ঘটনাস্থলে গিয়ে সরেজমিনে পরিদর্শন করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করব।

Comments are closed, but trackbacks and pingbacks are open.