না ফেরার দেশে অভিনেতা সালেহ আহমেদ

0 ৭০

স্টাফ রিপোর্টার, ঢাকা

দীর্ঘদিন ধরেই বার্ধক্যজনিত অসুখে ভুগছিলেন নন্দিত অভিনেতা সালেহ আহমেদ। মৃত্যুর সাথে লড়ে অবশেষে আজ তিনি পরপারে পাড়ি জমালেন (إِنَّا لِلّهِ وَإِنَّـا إِلَيْهِ رَاجِعُونَ)।

আজ (২৪ এপ্রিল, বুধবার) দুপুর ২টা ৩৩ মিনিটে রাজধানীর অ্যাপোলো হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান তিনি। তার মামাতো ভাই অভিনেতা আহসানুল হক মিনু গণমাধ্যমকে এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

বার্ধক্যজনিত নানা রোগে আক্রান্ত হয়ে দীর্ঘদিন ধরে অসুস্থ এই অভিনেতা। সপ্তাহ খানেক আগে গুরুতর অসুস্থ হয়ে আবারও অ্যাপোলো হাসপাতালে ভর্তি হন অভিনেতা সালেহ আহমেদ।

প্রায় ৫ বছর ধরে অ্যাপোলো হাসপাতালে নিয়মিত চিকিৎসা নেন। তবে ক্রমেই ৮৩ বছর বয়সী এই অভিনেতার শারীরিক অবস্থার অবনতি ঘটে। অবশেষে হঠাৎ শরীর বেশি খারাপ হওয়ায় সপ্তাহ খানেক আগে তাকে অ্যাপোলো হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানেই চিকিৎসা চলাকালীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।তার মৃত্যুতে শোকের ছায়া নেমে এসেছে সংস্কৃতি অঙ্গনে।

প্রসঙ্গত, বগুড়ার সারিয়াকান্দিতে সালেহ আহমেদের জন্ম। জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরে চাকরির পাশাপাশি ময়মনসিংহে অমরাবতী নাটমঞ্চের সঙ্গে যুক্ত ছিলেন এই অভিনেতা। স্বাধীনতার আগে বিটিভিতে তিনি নিয়মিত অভিনয় করতেন।

১৯৯১ সালে অবসরে যাওয়ার পর হুমায়ূন আহমেদের নাটকে ও চলচ্চিত্রে অভিনয় শুরু করেন। ধারাবাহিক ‘অয়োময়’ নাটক এবং ‘আগুনের পরশমণি’ চলচ্চিত্রের মাধ্যমে অভিনয় জগতে তার দাপুটে পদচারণা শুরু। এরপর অসংখ্য টিভি নাটক এবং চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন। স্বীকৃতি হিসেবে পেয়েছেন স্বাধীনতা পদক।

অরিন▐ মুক্তজমিন