নন্দীগ্রামে শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবসের আলোচনা সভা

93

নন্দীগ্রাম (বগুড়া) প্রতিনিধি

বগুড়ার নন্দীগ্রামে শেখ হাসিনার ৩৯তম স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবসের আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল শুক্রবার বিকেলে রানা’র চত্বর অডিটোরিয়ামে পৌর আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠন আয়োজিত এ আলোচনা সভায় অনুষ্ঠিত হয়। পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও প্যানেল মেয়র আনিছুর রহমানের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন, জেলা আওয়ামী লীগ ও জেলা পরিষদের সদস্য আনোয়ার হোসেন রানা। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান রেজাউল আশরাফ জিন্নাহ। অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, আ’লীগ নেতা মুক্তার হোসেন, রেজাউল করিম, আল-মামুন, রাকিবুল হাসান রাজ্জাক, সুজন প্রামানিক, উপজেলা শ্রমিকলীগের সাধারন সম্পাদক সরফুল হক উজ্জল, স্বেচ্ছা সেবকলীগের সভাপতি জাহাঙ্গীর আলম, সাধারন সম্পাদক আবু সাঈদ, পৌর যুবলীগের আহবায়ক জাহিদুল ইসলাম সজুন, পৌর শ্রমিকলীগের সাধারন সম্পাদক সানোয়ার হোসেন মিলন, সাবেক ছাত্রলীগ নেতা আনন্দ কুমার, কামরুল হাসান সবুজ, উপজেলা ছাত্রলীগের আহবায়ক তৌহিদ আহম্মেদ, যুগ্ম-আহবায়ক আবু তৌহিদ রাজীব, নাদিম, তাঁতীলীগের সভাপতি আবু নোমান, সাধারন সম্পাদক তারেক মাহমুদ ডিউ, বঙ্গবন্ধু ছাত্র পরিষদের সভাপতি রোমান আহমেদ সোহাগ, সাধাারন সম্পাদক আশরাফুল ইসলাম পায়েল প্রমুখ। সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে প্রধান অতিথি আনোয়ার হোসেন রানা বলেন, শেখ হাসিনার ঐতিহাসিক স্বদেশ প্রত্যাবর্তনের মধ্য দিয়ে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা এবং স্বাধীনতার মূল্যবোধ ও গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার পথ সুগম হয়েছে। ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট থেকে প্রায় ৬ বছর নির্বাসন শেষে ১৯৮১ সালের ১৭ মে গণতন্ত্রের মানসকন্যা শেখ হাসিনা বাংলার মাটিতে ফিরে আসেন। বাংলাদেশের গণতন্ত্রের ইতিহাসে এটা একটি মাইলফলক। তাঁর ঐতিহাসিক স্বদেশ প্রত্যাবর্তনের মধ্য দিয়ে সুগম হয় মুক্তিযুদ্ধের চেতনা, স্বাধীনতার মূল্যবোধ ও গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার পথ।

Comments are closed, but trackbacks and pingbacks are open.