ধুনটে জলাশয় দখল ও মাছ ধরা নিয়ে ভুমিহীন দুই গুরুপের  সংঘর্ষে আহত ১৫ পুলিশ মোতায়েন

৪৪

ধুনট (বগুড়া) প্রতিনিধি

বগুড়ার ধুনটে শিতলা বিল নামক জলাশয়ের দখল ও মাছ ধরাকে কেন্দ্র ভুমিহীনদের  দুই পক্ষের সংঘর্ষে ১৫জন আহত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে  পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে  শুক্রবার রাতে চৌকিবাড়ী ইউনিয়নের শিতলাবিল  গুচ্ছ গ্রামে। জানা গেছে, উপজেলার চৌকিবাড়ি ইউনিয়নের প্রায় ৯০ বিঘা সরকারী শীতলা বিল জলাশয়ে  ২০০৪ সালে সরকারী ভাবে আবাসন প্রকল্প গ্রহন করা হয়। বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর ইঞ্জিনিয়ারিং কোরের সদস্যদের তত্ত¡বধানে ওই বিল খনন করে চারপাশে ঘরবাড়ি নির্মান করা হয়। আবাসন প্রকল্পের ওই সব ঘরবাড়ি ১২০ ভ‚মিহীন পরিবারে  সদস্যদের মাঝে বরাদ্দ দেওয়ার পর তাদের  জীবিকার নির্বাহের জন্য শিতলাবিলের মাছ চাষের জন্য ব্যবস্থাও করা হয়। প্রায় ১৫ বছর ধরে ওই আবাসন প্রকল্পের বসবাসকারীরা শিতলাবিলে মাছ চাষ করে জীবিকা নির্বাহ করে আসছে। চৌকিবাড়ি ইউপি সদস্য জামাল উদ্দিন বলেন,  গত কয়েকদিন থেকে ভুমিহীন শফিকুল ইসলাম ও জামিল উদ্দিনের মধ্যে শিতলাবিলে  মাছ চাষ ও আধিপত্য নিয়ে  দুই গুরুপের সৃষ্টি হয় এবং উভয় পক্ষের  সদস্যদের মধ্যে উত্তেজনা দেখা দেয়। বিষয়টি নিয়ে স্থানীয় ভাবে মীমাংসার চেষ্টাও করা হয়েছিল।  তিনি জানান , শুক্রবার  রাত আনুমানিক ৮টার সময়  ওই শিতলা বিলে ধাছ ধরা ও আধিপত্য নিয়ে দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।  এতে  উভয় পক্ষের ১৫জন আহত হয়।  আহতরা হলেন, জামিল উদ্দিন (৩১),  মোন্নাফ আলী (৩৮), আব্দুল হান্নান (৩৪), শামীম আহমেদ (১৭), আজিজুল ইসলাম (৫৮), তার স্ত্রী খোদেজা খাতুন (৪৮), পুত্র বাবু মিয়া (২৯), জামাই রফিকুল ইসলাম (৩৩), মোকবুল হোসেন (৫২), তার স্ত্রী আছফুল খাতুন (৩৮), পুত্র আপেল মিয়া (৩১) অপর পক্ষে শফিকুল ইসলাম (৪১), বছির  সোলায়মান আলী (৫০),  আব্দুস ছালাম শেখ (৩৮), আব্দুস ছালাম আকন্দ (৫৫) আহতদের রাতেই ধুনট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। এরমধ্যে জামিল উদ্দিন, মোন্নাফ আলী ও আব্দুল হান্নানের অবস্থা আশংকাজনক হওয়ায় তাদের  বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় ভুমিহীনদের উত্তেজনা ও পরিস্থিতি বেগতিক হওয়ায় রাতেই সেখানে পুলিশ মোতায়েন করা হয়। ধুনট থানার অফিসার্স ইনচার্জ (ওসি) ইসমাইল হোসেন ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, শিতলা বিল আবাসন প্রকল্পের ভুমিহীনদের  দু’পক্ষের সংঘর্ষের পর  আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি অবনতির আশঙ্কায় সেখানে  পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।  কোন পক্ষই থানায় মামলা করেনি।