গোবিন্দগঞ্জের পানিতলায় ৬ একর খাঁস জমি অবৈধ ভাবে দখল করে বিক্রির অভিযোগঃ সংশ্লিষ্ঠ কর্তৃপক্ষ নিরব

44

গোবিন্দগঞ্জ (গাইবান্ধা)প্রতিনিধিঃ

গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জের পানিতলায় ৬একর সরকারী খাঁস জমি অবৈধ ভাবে দখল করে বিক্রির অভিযোগ পাওয়া গেছে। একাধিক অভিযোগ সূত্রে জানা যায়,উপজেলার রাজাহার ইউপির পানিতলা এলাকার তৎকালিন জমিদারের ওয়ারিশ হিসেবে আঃ ছাত্তার আকন্দ,আহম্মদ আলী, আলাবকস্ ও আজিবর ডাক্তার গংরা শিহিপুর মৌজার জিএস খং নং ৭২,দাগ নং-এসএ মুলে ১৩৩১ ও ১৩৩২। বর্তমান খং নং- ২ ও ১ সাবেক দাগে মোট ৬.৫১শত জমি স্ব-স্ব মালিক অংশ হিসেবে পানিতলা হাট,উচ্চ বিদ্যালয় ও জামে মসজিদের নামে দলিল মুলে হস্তান্তর করেন এবং সেই থেকে প্রতিষ্ঠান গুলি ভোগ দখল করে আসে। এক পর্যায়ে উল্ল্যেখিত জমি গুলি ৩০ ধারা,৩১ ধারায় ব্যক্তি মালিক পক্ষের বিপক্ষে রায়-আদেশ প্রদান করায় সরকারী খাঁস খতিয়ানে চলে যায়। আর এ সুযোগে ঐ এলাকার মৃত: আইজুদ্দিনের পুত্র ভূমি র্দস্যু প্রভাবশালী বাদশা মিয়া ভুয়া কাগজ দেখিয়ে জোর পূর্বক দখল করে নিয়েছে। এমনকি বাদশা মিয়া ইতিমধ্যই পুকুরের পূর্ব পাড়ে বাড়ী ঘর করে অন্যদের নিকট বিক্রয় করেছে মর্মে স্থানীয় ইউপি’র চেয়ারম্যান আব্দুল লতিফ সরকার ও হাট ইজারাদার আশরাফ আলী অবৈধ দখল কৃত সরকারী জমি উদ্ধারের জন্য গত ২৯/০১/১৯ ইং তারিখে পৃথর্ক ভাবে উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও জেলা প্রশাসক বরাবরে আবেদন করেন। সরকারী ভূমি দখল ও বিক্রির অভিযোগ সংক্রান্ত সংশ্লিষ্ট তহশীলদার তৌফিকুর রহমানের নিকট জানতে চাইলে তিনি বলেন শুনেছি দেখেছি বিষয়টি আমি উর্দ্ধতন র্কতৃপক্ষকে অবহিত করেছি। এ ব্যাপারে অভিযুক্ত বাদশা মিয়ার সাথে একাধিক বার যোগাযোগের চেষ্টা করে তাকে পাওয়া যায়নি।