খালেদা জিয়ার মামলার বিচার এখন থেকে কেরানীগঞ্জ কারাগারে

৮৭

স্টাফ রিপোর্টার,ঢাকা

কারাবন্দি বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে চলমান মামলাগুলোর বিচার এখন থেকে কেরানীগঞ্জের কেন্দ্রীয় কারাগারের সামনে নবনির্মিত ২ নম্বর ভবনের অস্থায়ী আদালতে অনুষ্ঠিত হবে। খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে নাইকোসহ আরো ১২ মামলা চলমান রয়েছে।
রোববার আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রণালয় থেকে এ বিষয়ে প্রজ্ঞাপন জারি হয়েছে। প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, নিরাপত্তাজনিত কারণে কেরানীগঞ্জে অবস্থিত কেন্দ্রীয় কারাগারের সামনে নবনির্মিত ২ নম্বর ভবনের অস্থায়ী আদালতে মামলাগুলোর বিচাররিক কার্যক্রম অনুষ্ঠিত হবে।
খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে ১২ মামলা হলো-রাজধানীর দারুসসালাম থানা এলাকায় নাশকতার অভিযোগে করা ৮ মামলা, যাত্রাবাড়ী এলাকায় বাসে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় করা মামলা, মানহানির অভিযোগে করা তিন মামলা। এ মামলাগুলো সাবেক কেন্দ্রীয় কারাগারে অবস্থিত বিশেষ জজ আদালত ও বকশি বাজারের আলিয়া মাদরাসা মাঠে অবস্থিত আদালতে অভিযোগ গঠন শুনানির জন্য রয়েছে।

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া দুদকের দায়ের করা দুই মামলায় ১০ ও ৭ বছরের কারাদণ্ডে দণ্ডিত হয়েছেন। আপিলে জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় ৫ বছরের কারাদণ্ড বেড়ে ১০ বছর এবং জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় বিশেষ আদালতে ৭ বছরের কারাদণ্ডে দণ্ডিত হন তিনি।
২০১৮ সালের ৮ ফেব্রুয়ারি জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলার রায় ঘোষণার পর পুরান ঢাকার নাজিমউদ্দিন রোডে অবস্থিত পুরনো কেন্দ্রীয় কারাগারে খালেদা জিয়াকে বন্দি রাখা হয়। বর্তমানে তিনি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বিএসএমএমইউ) চিকিৎসাধীন।