এ কোন জয়া!

জয়া আহসান অভিনীত ‘বিসর্জন’ ছবিটি ভারতে পেয়েছে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার।

141

জয়া আহসান অভিনীত ‘বিসর্জন’ ছবিটি ভারতে পেয়েছে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার। আর এই ছবিটি দিয়ে জয়া আহসান পেয়েছেন পশ্চিমবঙ্গের ফিল্মফেয়ার, জি সিনে অ্যাওয়ার্ড, সেরা বাঙালি এবিপি আনন্দ পুরস্কার, হায়দরাবাদ চলচ্চিত্র উৎসব, ওয়েস্ট বেঙ্গল জার্নালিস্ট অ্যাসোসিয়েশন অ্যাওয়ার্ড আর ইন্টারন্যাশনাল বেঙ্গলি ফিল্ম অ্যাওয়ার্ডসহ নানা আয়োজনে সেরা অভিনেত্রীর পুরস্কার।

জয়া আহসান অভিনীত ‘বিসর্জন’ ছবিটি ভারতে পেয়েছে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার। আর এই ছবিটি দিয়ে জয়া আহসান পেয়েছেন পশ্চিমবঙ্গের ফিল্মফেয়ার, জিসিনে অ্যাওয়ার্ড, সেরা বাঙালি এবিপি আনন্দ পুরস্কার, হায়দরাবাদ চলচ্চিত্র উৎসব, ওয়েস্ট বেঙ্গল জার্নালিস্ট অ্যাসোসিয়েশন অ্যাওয়ার্ড আর ইন্টারন্যাশনাল বেঙ্গলি ফিল্ম অ্যাওয়ার্ডসহ নানা আয়োজনে সেরা অভিনেত্রীর পুরস্কার। গত শুক্রবার কলকাতায় মুক্তি পেয়েছে এই ছবির পরবর্তী গল্প নিয়ে ‘বিজয়া’। এবারও আলোচিত জয়া আহসান। যাঁরা ছবিটি দেখেছেন, সবাই বাংলাদেশ ও ভারতের বাংলা ছবির এ সময়ের জনপ্রিয় এই অভিনেত্রীর অভিনয়ের দারুণ প্রশংসা করছেন।

এই আলোচনার ফাঁকেই শনিবার ইউটিউবে অবমুক্ত করা হয়েছে জয়া আহসানের আরেকটি ছবির ট্রেলার। তাঁর এই ছবির নাম ‘বৃষ্টি তোমাকে দিলাম’। এ উপলক্ষে কলকাতার হার্ড রক ক্যাফেতে এক অনুষ্ঠান আয়োজন করা হয়। ১ মিনিট ২৬ সেকেন্ডের এই ট্রেলার মুক্তির পর প্রশংসার বন্যায় ভাসছেন জয়া আহসান। অনেকেই তাঁর অভিনয় দেখে অবাক হয়ে প্রশ্ন করেছেন, এ কোন জয়া! ছবির পরিচালক অর্ণব পাল। জানা গেছে, ছবিটি এ বছরই মুক্তি পাবে।

‘বৃষ্টি মানেই ভালোবাসা নয়’—নিজেকে নিয়ে কিংবা বৃষ্টি নিয়ে তাঁর অনুভূতির কথা না, ‘বৃষ্টি তোমাকে দিলাম’ ছবির প্রচারণায় সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে এ মন্তব্য করেন জয়া আহসান। ছবির অন্যতম চরিত্র বৃষ্টি, এই চরিত্রে অভিনয় করেছেন তিনি। ‘বৃষ্টি তোমাকে দিলাম’ সাইকোলজিক্যাল থ্রিলার ধাঁচের ছবি। এখানে নিজের কাজ নিয়ে জয়া আগেই বলেছেন, ‘খুব ডাইনামিক একটা চরিত্র। ভীষণ স্ট্রং সেন্স আছে চরিত্রটার মধ্যে। একদম অন্য ধরনের ছবি। আমি কোনো সাইকোলজিক্যাল থ্রিলার ছবিতে কাজ করিনি, এবারই প্রথম।’

জয়া আহসান এর আগে কৌশিক গঙ্গোপাধ্যায়, অরিন্দম শীল, সৃজিত মুখোপাধ্যায়ের মতো প্রতিষ্ঠিত পরিচালকের সঙ্গে কাজ করেছেন। চলচ্চিত্রে অর্ণব পাল একেবারেই নতুন। তাঁর সঙ্গে কাজ করতে রাজি হলেন কেন? জয়া বললেন, ‘গল্পটা বেশ ভালো লেগেছিল। আর আমার চরিত্রে ডার্ক শেড আছে। গল্পে আমার চরিত্রের যে ছায়াগুলো ফুটে উঠবে, তা খুব ইন্টারেস্টিং।’

ছবির নায়িকা বৃষ্টি ‘স্প্লিট পারসোনালিটি ডিসঅর্ডার’-এর রোগী। ডাক্তারের পরামর্শে বাইরে বেড়াতে গিয়ে এক দুর্ঘটনায় জড়িয়ে যায়, যা নিয়ে পুলিশ-আদালত পর্যন্ত যেতে হয়। ছবিতে মনোরোগ চিকিৎসকের ভূমিকায় অভিনয় করেছেন চিরঞ্জিত।

মানসিক সমস্যাকে কেন্দ্র করে ছবি তৈরি করছেন পরিচালক অর্ণব পাল। এর আগে তিনি মেগা সিরিয়াল, টেলিছবি তৈরি করেছেন। ‘বৃষ্টি তোমাকে দিলাম’ ছবির কাহিনি, চিত্রনাট্য ও সংলাপ যৌথভাবে লিখেছেন অংশুমান-প্রত্যুষ। অর্ণব পাল বলেন, ‘গল্পটা যখন প্রথম শুনলাম, আমার ঠাকুমার কথা মনে হয়েছিল। ঠাকুমারও এই রোগ ছিল। তাঁকে নিয়ে কয়েকবার চিকিৎসকের কাছে গিয়েছিলাম। এ ধরনের রোগীদের সেবা আর ভালোবাসার খুব প্রয়োজন।’

জয়ার অভিনয়ের প্রশংসায় উচ্ছ্বসিত অর্ণব পাল। ভারতীয় সংবাদমাধ্যমকে তিনি বলেছেন, ‘গল্প-চিত্রনাট্য যদি হয় শতকরা ৭০ ভাগ, জয়া তাঁর অতুলনীয় অভিব্যক্তি দিয়ে সেটা পুরো ১০০ ভাগ করে দিয়েছেন।’ আর চিরঞ্জিতের সঙ্গে কাজ করার অভিজ্ঞতা বললেন এভাবে, ‘খুব ভালো। তিনি খুব সাহায্য করেছেন। এমনকি রাত সাড়ে ১১টা পর্যন্ত শুটিং করেছেন, যা সাধারণত তিনি করেন না।’

নারীকেন্দ্রিক এই ছবিতে জয়া আহসানের পাশাপাশি আরও অভিনয় করছেন চিরঞ্জিত চক্রবর্তী, সুব্রত দত্ত, রজতাভ দত্ত, বাদশা মৈত্র, রাজেশ শর্মা, সঞ্জীব সরকার, নিমাই ঘোষ, সোনালি চট্টোপাধ্যায়, তনুশ্রী চট্টোপাধ্যায় প্রমুখ। ছবির গানের সুর ও সংগীত পরিচালনা করেছেন দেবজ্যোতি মিশ্র ও রকেট মণ্ডল। ছবির শুটিং হয়েছে কলকাতায় আর ভারত-ভুটান সীমান্তের ঝালংয়ে। ছবিটি প্রযোজনা করেছে বালাজি মোশন পিকচার্স।