ঈদের আনন্দধারায় মিশেছে বৃষ্টি

102

স্টাফ রিপোর্টার,ঢাকা :

‘ঈদ এসেছে দুনিয়াতে শিরনি বেহেশতী/দুষমনে আজ গলায় গলায় পাতালো ভাই দোস্তি’— জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামের কবিতার মতো সবাইকে আনন্দে একাকার করতে আবার এসেছে ঈদ। দীর্ঘ এক মাস রোজা পালনের পর বুধবার ইসলাম ধর্মাবলম্বীরা সবচেয়ে বড় উৎসব পবিত্র ঈদুল ফিতর পালন করছেন।

বৃষ্টি উপেক্ষা করে সকালে রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন স্থানের মানুষ ঈদগাহ ও মসজিদে ঈদুল ফিতরের দুই রাকাত ওয়াজিব নামাজ আদায় করেন। এরপর কিছুক্ষণ বিরতি দিয়ে টানা বৃষ্টি চলছেই। বৃষ্টি হচ্ছে প্রায় সারাদেশেই। বৃষ্টি অনেকটাই ফিকে করে দিয়েছে ঈদের আনন্দ। উৎসব মুখরতায় দিনে অবিরাম বৃষ্টি মানুষকে অনেকটাই ঘরে আটকে রেখেছে।

তারপরও থেমে নেই ঈদের শুভেচ্ছা বিনিময়। সাক্ষাতে, মোবাইলে এসএমএসে, ফেসবুকে, ই-মেইলে বুধবার সারাদিনই চলবে এ ঈদের শুভেচ্ছা বিনিময়।

রাজধানীর হাইকোর্ট প্রাঙ্গণে জাতীয় ঈদগাহ ময়দানে ঈদের প্রধান জামাত অনুষ্ঠিত হয়। এতে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ, ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র সাঈদ খোকন, মন্ত্রিসভার সদস্য, কূটনীতিকসহ গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিরা নামাজ আদায় করেন। বৃষ্টি উপেক্ষা করে প্রধান জামাতে রাজধানীর বিভিন্ন প্রান্ত থেকে লাখো মুসল্লি অংশ নেন।

ঈদের দিনে আনন্দমুখর পরিবেশে নতুন পোশাক পরে চলছে একে অপরের সঙ্গে কোলাকুলি। বেড়াতে যাচ্ছেন একে অপরের বাড়ি। ঘরে ঘরে সেমাই, বিভিন্ন ধরনের মিষ্টান্ন, কোরমা, পোলাও, খিচুড়ি আর নানা পদের মুখরোচক খাবার রান্না হয়েছে।

নতুন পোশাক পরে ঈদে শিশুদের আনন্দ সবচেয়ে বেশি। নতুন পোশাক পরে বড়দের কাছ থেকে সালামি আদায়ে তৎপর রয়েছে শিশুরা। সকালের দিকে পথে-ঘাটে চোখে পড়ছে নতুন পোশাক জড়ানো আনন্দ-উদ্বেল শিশুদের। তবে বৃষ্টির কারণে ঢাকার পথঘাট ভেজা, কোথাওবা কাদা। বৃষ্টিতে রাজধানীর বিভিন্ন সড়ক ও এলাকা ইতোমধ্যে জলমগ্ন হয়ে পড়েছে।

বর্ষাকালের কারণে ঈদের আনন্দ বিঘ্নিত হতে পারে বলে আগেই জানিয়েছিল আবহাওয়া অধিদফতর। আবহাওয়া বিভাগ পূর্বাভাস দেয়, বুধবার সকাল ১০টা থেকে পরবর্তী ২৪ ঘণ্টার মধ্যে ঢাকা, খুলনা, বরিশাল, চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের অধিকাংশ জায়গায় ভারী থেকে অতিভারী বৃষ্টিপাত হতে পারে।

এদিকে প্রিয়জনদের সঙ্গে ঈদ করতে বেশির ভাগ মানুষই ঢাকা ছেড়ে গ্রামের বাড়িতে চলে গেছেন। তাই ঢাকার পথঘাট ফাঁকা ফাঁকা লাগলেও গ্রামগুলো সরগরম। বহু দিন পর শহরে থাকা প্রিয়জনকে কাছে পেয়ে গ্রামে থাকা পরিজনরা উচ্ছ্বাসে ভাসছেন।

 

Comments are closed, but trackbacks and pingbacks are open.