ইয়াবা দিয়ে ইউপি সদস্যকে ফাঁসানোর চেষ্টা বগুড়ায় কাগইল ইউপি চেয়ারম্যান তপন দুই সহযোগিসহ গ্রেফতার

৮৩

স্টাফ রিপোর্টার, বগুড়া
বগুড়ায় ইউপি সদস্যকে ইয়াবা দিয়ে ফাঁসাতে গিয়ে ইউপি চেয়ারম্যান ও তার দুই সহযোগি কে গ্রেফতার করেছে ডিবি পুলিশ। ঘটনাটি ঘটেছে বগুড়ার গাবতলী উপজেলার কাগইল ইউনিয়ন পরিষদ এলাকায়। এ ঘটনায় কাগইল ইউপি চেয়ারম্যান আগানিহাল বিন জলিল ওরফে তপন(৫৪) চেয়ারম্যান সহ তার দুই সহযোগির বিরুদ্ধে গাবতলী থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। জানাগেছে গাবতলী উপজেলার কাগইল ইউপি চেয়ারম্যান আগানিহাল বিন জলিল ওরফে তপন এর সাথে ইউপি সদস্যদের সরকারি বরাদ্দ নিয়ে বিভিন্ন সময় বিরোধ দেখা দেয়। এতে ইউপি সদস্যরা চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে স্থানীয় ইউএনও ,উপজেলা চেয়ারম্যান ও স্থানীয় সরকার মন্ত্রনালয়ে অভিযোগ করলে এবং চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে ১০/১২টি মামলা থাকায় স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয় তাকে সাময়িক বরখাস্ত করেন। এ সময় ইউপি সদস্য শামীম চেয়াম্যান এর চলতি দায়িত্ব পালন করেন। পরবর্তীতে গত ১৫ এপ্রিল হাইকোর্ট চেয়ারম্যানের সাময়িক বরখাস্তের আদেশ স্থগিত করে। তার পরেও চেয়ারম্যান তপন ইউনিয়ন পরিষদে প্রবেশ করতে না পারায় ইউপি সদস্য শামীমকে ইয়াবা দিয়ে ফাঁসানোর পরিকল্পনা করে। এদিকে পুলিশের সোর্স সুলতান মিয়া ও সুজনকে দিয়ে গত ১৪ মে দুপুরে ইউনিয়ন পরিষদ এলাকায় গোপনে শামীম এর মোটরসাইকেলের ভিতর ৫০টি ইয়াবা ঢুকিয়ে দেয়। এরপর গত মঙ্গলবার সুলতান ও সুজন ডিবি পুলিশকে ইয়াবা সংক্রান্ত খবর দিলে বুধবার ভোরে ডিবি পুলিশ শামীম এর বাড়িতে অভিযান চালিয়ে তার মটরসাইকেলের ভিতর থেকে ৫০পিস ইয়াবা উদ্ধার করে। তবে ঘটনাস্থলে পুলিশের সন্দেহ হলে তারা দুই সহযোগিকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করলে তারা চেয়ারম্যানের মাধ্যমে ঘটনা ঘটানোর বিষয়টি স্বীকার করে। পরে ডিবি পুলিশ চেয়ারম্যান তপন কে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করলে সে ইউপি সদস্যকে ইয়াবা দিয়ে ফাঁসানোর চেষ্টার বিষয়টি স্বীকার করে। বগুড়া ডিবি পুলিশের ওসি আসলাম আলী চেয়ারম্যান তপনকে গ্রেফতারের বিষয়টি স্বীকার করে জানান, ইয়াবা দিয়ে অন্যকে ফাঁসানোর অপরাধে ইউপি চেয়ারম্যান তপনের বিরুদ্ধে গাবতলী থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।