আহতদের দেখতে গিয়ে তোপের মুখে শোভন-রব্বানী, উত্তেজনা

100

স্টাফ রিপোর্টার,ঢাকা ঃ

কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণার পর পদবঞ্চিতদের ওপর হামলায় আহতদের দেখতে গিয়ে ক্ষোভের মুখে পড়েছেন সংগঠনের সভাপতি রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন ও সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানী। বিক্ষুব্ধ নেতাকর্মীদের তীব্র আপত্তিতে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের গেইট থেকেই ফেরত আসতে হয় শোভন-রাব্বানীকে।

রাত পৌনে এগারটার দিকে ছাত্রলীগের শীর্ষ এ দু’নেতা ঢাকা মেডিকেল কলেজের জরুরি বিভাগে আহতদের দেখতে গেলে আহতদের সঙ্গে থাকা শতাধিক নেতাকর্মীরা তাদের বাধা দেন। প্রায় আধাঘণ্টা পদবঞ্চিতদের সঙ্গে বাকবিতণ্ডার পর আহতদের না দেখেই ফিরে যান শোভন-রাব্বানী।

এ সময় উভয় পক্ষের নেতাকর্মীরা পাল্টা-পাল্টি স্লোগান দিতে থাকেন। ‘মানবতার কথা বলে বোনদের উপর হামলা কেন, বিচার চাই বিচার চাই’, ‘বিবাহিতরা কমিটিতে কেন, মানি না মানবো না’, ‘রাজাকারপুত্র কমিটিতে কেন, মানি না মানবো না’, ‘সন্ত্রাসীদের কালো হাত, ভেঙ্গে দাও গুড়িয়ে দাও’, ইত্যাদি স্লোগান দেয় পদবঞ্চিতরা।

এসময় সভাপতি-সাধারণ পক্ষের নেতাকর্মীরাও ‘বিদ্রোহীদের কালো হাত ভেঙ্গে দাও, গুড়িয়ে দাও’ বলে পাল্টা স্লোগান দেয়।

জানা গেছে, শোভন-রাব্বানী মেডিকেলের গেইটে যাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে তাদের পথ রুদ্ধ করে দাঁড়ান রোকেয়া হলের সভাপতি ডাকসুর ক্যাফেটেরিয়া সম্পাদক বিএম লিপি।

এ সময় সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদককে উদ্দেশে তিনি বলেন: রাজাকারপুত্র, বিবাহিত, অছাত্রদের কমিটিতে রেখেছেন, আমাদের মত ত্যাগীদের কেন মূল্যায়ন করেননি।

এ সময় রাব্বানী বলেন, সামনে মূল্যায়ন করা হবে।

বঙ্গবন্ধু হলের ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক আল আমিন রহমান বলেন: যাদের কমিটিতে রেখেছেন তারা কোন বিবেচনায় আমাদের চেয়ে যোগ্য।

Comments are closed, but trackbacks and pingbacks are open.